জেনে নিন কী কী কারণে পুরুষের স্পার্ম কাউন্ট কমে সন্তান উৎপাদন ক্ষমতা কমে যায়

amitumi_why your sperm count is less

সন্তান ধারণে অক্ষমতার দায় চিরকাল মহিলাদের উপরই চাপিয়ে এসেছে সমাজ। অথচ পুরুষের কম স্পার্ম কাউন্ট অধিকাংশ সময়ই বড় বাধা। বর্তমান জীবন যাপন, কাজের চাপ, স্ট্রেস, রাত জাগার কারণে অধিকাংশ পুরুষেরই এখন স্পার্ম কাউন্ট কম। জেনে নিন কী কী বদ অভ্যাসের কারণে স্পার্ম কাউন্ট কম হয়। সন্তান আনতে গেলে কিন্তু আপনাকে এগুলো ছাড়তেই হবে।

১। সানস্ক্রিন
রোদে বেরনোর আগে সানস্ক্রিন লাগালে ত্বক পোড়া থেকে বাঁচতে পারে, স্কিন ক্যানসারের সম্ভাবনাও কমে। তবে তা আপনার স্পার্ম কাউন্টের ক্ষতি করে। গবেষকরা জানাচ্ছেন সানস্ক্রিনের মধ্যে থাকা ইউভি রে, বিপি-টু ও থ্রিওএইচ-বিপি শরীরের বিভিন্ন হরমোনের সঙ্গে বিক্রিয়ায় যৌন ক্ষমতার ক্ষতি করে। তাই সানস্ক্রিন মেখে বাইরে বেরোলেও বাড়ি ফিরেই মুখ ধুয়ে ফেলুন।

২। প্রসেসড মিট
টাটকা মাংস, প্রোটিন যেমন স্পার্মের স্বাস্থ্য ভাল রাখে। তেমনই প্রসেসড মিট খেলে ক্ষতি হয় স্পার্ম কাউন্টে। বার্গার, সসেজ, বেকন যতটা সম্ভব ডায়েট থেকে বাদ দিন। তার বদলে খান টাটকা রান্না করা মাংস বা বাড়িতে রান্না মাংস।

৩। টিভি
যদি আপনার অতিরিক্ত টিভি দেখার অভ্যাস থাকে তাহলে অবশ্যই অবিলম্বে সেই অভ্যাস ত্যাগ করুন। বেশি টিভি দেখার অভ্যাস স্পার্ম কাউন্টের ক্ষতি করে। সমীক্ষা বলছে, যাঁরা সপ্তাহে ২০ ঘণ্টার বেশি টিভি দেখেন তাঁদের স্মার্ম কাউন্টের স্বাভাবিকের থেকে ৪৪ শতাংশ কম।

৪। মদ্যপান
অতিরিক্ত মদ্যপানের কারণেও স্পার্ম কাউন্ট কমে যেতে পারে। সাধারণত যাঁরা মদ্যপান করেন তাঁরা দিনের শেষে বাড়ি ফিরে সোফায় বসে টিভি দেখতে দেখতে মদ্যপান করেন। ফলে ক্ষতি দ্বিগুণ হয়। যদি আপনি সন্তান চান তাহলে অবশ্যই মদ্যপান কমান।

৫। সেক্স
নিয়মিত সেক্স করলে স্পার্মের উত্পাদন ভাল হয়। সেক্সের সময় যে সব হরমোন ক্ষরণ হয় তা স্পার্মের ঘনত্ব বাড়ায়। তাই যদি সন্তান চান তবে নিয়ম করে সেক্স অবশ্যই করুন।

৬। স্ট্রেস
শারীরিক ও স্বাস্থ্য উভয়েরই ক্ষতি করে স্ট্রেস। শুধু তাই নয়, অতিরিক্ত স্ট্রেস বিভিন্ন ভাবে বন্ধাত্ব্য ডেকে আনতে পারে। স্ট্রেসের ফলে টেস্টোটেরন উত্পাদনে ঘাটতি হতে পারে। ফলে কমতে পারে স্পার্ম কাউন্ট।

৭। সয়
হার্ভার্ড স্কুল অফ পাবলিক হেলথ জানাচ্ছে স্পার্ম কাউন্টের সব থেকে বেশি ক্ষতি করে সয় প্রোটিন।

৮। ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোন
অতিরিক্ত ল্যাপটপ বা মোবাইল ফোন ব্যবহার করলেও ক্ষতি হতে পারে স্পার্ম কাউন্টের। ২০০৮-এ প্রকাশিত এক গবেষণার ফল বলছে যাঁরা দিনে চার ঘণ্টার বেশি মোবাইলে কথা বলেন তাঁদের স্পার্ম কাউন্ট অন্যদের থেকে কম হয়।

৯। প্রোটিন
প্রোটিন স্পার্ম কাউন্ট স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। স্বাস্থ্য ভাল রাখতে সবুজ শাক-সবজি খাওয়া ভাল। তবে ডায়েটে যেন সঠিক পরিমাণে ডাল, মাছ, মাংস, ডিম, দুধ, পনির, ছানা জাতীয় খাবার থাকে।

facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail