প্রেমিক-প্রেমিকা বাছাই করুন রাশি মিলিয়ে!

amitumi_love according to horoscope

কোন রাশির জাতক জাতিকাদের মধ্যে ভালোবাসার রূপ কেমন? কেমন হয় তার বহিঃপ্রকাশ। কেউ ভালোবাসে রূপ দেখে, কেউবা গুণ দেখে। এক্ষেত্রে একেকজনের পছন্দ একেকরকম।

এ বিষয়ে জানাচ্ছেন বাংলাদেশ অ্যাস্ট্রোলজার্স সোসাইটি (বিএএস)’র সদস্য অ্যাস্ট্রোলজার অ্যান্ড সাইকিক কনসালটেন্ট ফজলে আজিম।

মেষ রাশি (২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)
প্রত্যেক নারীই তার মনের মানুষের মাঝে ভবিষ্যতের নিরাপত্তা খুঁজে বেড়ান। আর তাই সাহসী ও রোমান্টিক পুরুষরাই নারীর প্রথম পছন্দ। এ দিক থেকে মেষ রাশির জাতক হলে আপনি সৌভাগ্যবান। তবে অতি কর্তৃত্বপরায়ণতা নারীরা পছন্দ করে না। আপনার সঙ্গীর ভালোবাসা পেতে হলে এ বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে। নারীর কোমলতা সব পুরুষকেই আকর্ষণ করে। তবে অগ্নি রাশি মেষ হওয়ায় কোমলতার মাঝেও আপনার চঞ্চলতা বা জেদ থাকতে পারে। আপনার জীবনসঙ্গী যদি মানসিকভাবে সরল প্রকৃতির হয় তবে তার জন্যে আপনি হতে পারেন আদর্শ পরিপূরক।

বৃষ রাশি (২১ এপ্রিল-২১মে)
আপনি সৌন্দর্যমনা ও রোমান্টিক। এ কারণে কবিতা সাহিত্য কিংবা কলার সঙ্গে সম্পৃক্ততা থাকতে পারে। এ গুণগুলোর কারণে সহজেই বিপরীত লিঙ্গের জাতক জাতিকারা আপনার প্রতি আকর্ষণ অনুভব করতে পারে। তবে আপনি একগুঁয়ে প্রকৃতির। যা চান তা আদায় করতে না পারা পর্যন্ত ক্ষান্ত হন না। প্রেম রোমান্স কিংবা দাম্পত্য সম্পর্কের ক্ষেত্রে আপনাকে আরও সহনশীল হতে হবে। এ রাশির জাতক জাতিকাদের গিফট হিসেবে অলংকার, কারুপণ্য, পারফিউম কিংবা বই দিলে বেশি খুশি হয়।

মিথুন রাশি (২২ মে-২১ জুন)
কথার মায়াজালে বন্দি করার এক অস্বাভাবিক গুণ রয়েছে আপনার। কাব্যচর্চা কিংবা লেখালেখির প্রতিও আপনার ঝোঁক থাকতে পারে। ভালোবাসার মানুষকে আপনি আনন্দ দিতে পছন্দ করেন। গল্প কথায় জমিয়ে ফেলতে পারেন আড্ডা। এ রাশির নারী কিংবা পুরুষ সহজাতভাবেই মিশুক হয়। আর তাই বন্ধুত্বের ব্যপ্তিও হয় কিছুটা বড়। মিথুন রাশির জাতক জাতিকা সাধারণত বই পড়তে পছন্দ করেন। আপনার সঙ্গীকে খুশি রাখতে তার পছন্দের বই নিজেও পড়তে পারেন। উপহার হিসেবে বেছে নিতে পারেন পছন্দের কোনো বই।

কর্কট রাশি (২২ জুন-২২ জুলাই)
আপনি যথেষ্ট আবেগপ্রবণ ও স্পর্শকাতর। এ কারণে সহজেই অন্যের প্রতি ভালোলাগা তৈরি হয়। স্পর্শকাতরতার জন্য সে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা কঠিন হতে পারে। ভালোবাসার মানুষটির জন্য নিজের কিছু ভালোলাগাকে উৎসর্গ করলে দোষ কি। সম্পর্ক আনন্দময় করতে অভিমানের জাল থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। অভিমান কিংবা অভিযোগ কোনো সমাধান নয়। আপনার ভালোলাগার মানুষটির মন পেতে হলে তার পছন্দের কাজগুলো করতে পারেন। আপনাকেই খুঁজে নিতে হবে আপনার সঙ্গীর কী পছন্দ। চন্দ্রকলার মতোই এদের পছন্দের ক্ষেত্রে একেকসময় একেক জিনিস প্রাধান্য পায়। তবে এরা সুস্বাদু খাবার খেতে পছন্দ করে।

সিংহ রাশি (২৩ জুলাই-২৩ অগাস্ট)
আপনার প্রিয় মানুষ যদি হয় সিংহ রাশির জাতক কিংবা জাতিকা, তার গুণের প্রশংসা করলেই সম্পর্কের গভীরতা বাড়বে। হতে পারেন তার কাজের সহযোগী। উপহার হিসেবে দিতে পারেন ব্যাতিক্রম কোনো বিলাসজাত সামগ্রী। কর্মব্যস্ততার মাঝে সুযোগ পেলে বেড়াতে যেতে পারেন দর্শনীয় কোনো স্থানে কিংবা প্রকৃতির কাছাকাছি। আপনি যাকে ভালোবাসেন তাকে মনে প্রাণে ভালোবাসেন। যাকে ঘৃণা করেন তাকেও মনে প্রাণেই ঘৃণা করেন। আর তা প্রকাশ পায় আপনার কথা কিংবা আচরণে। এ কারণে কিছু মানুষের সঙ্গে আপনার সম্পর্কের দূরত্ব তৈরি হবে। এ রাশির জাতক কিংবা জাতিকা ভীরু লোকদের পছন্দ করে না।

কন্যা রাশি (২৪ অগাস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)
মানুষ হিসেবে আপনি যথেষ্ট ভালো মানসিকতা নিয়ে সামনের দিকে পা বাড়ান। প্রিয় মানুষের জন্য অনেক কিছুই করতে পারেন নির্দিধায়। অভিমান করতে পছন্দ করেন আপনি। আপনি চান প্রিয় মানুষটি আপনার মান ভাঙাক। আর তাতেই আপনি তুষ্ট হন। চিন্তার জগতে আপনার রয়েছে চঞ্চলতা। আর তাই অন্যের দ্বারা প্রভাবিত হন। প্রেম ও দাম্পত্য সম্পর্কের ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণ রাখতে হয় নিজের কাছে। মনের মানুষের কাছে চাওয়া থাকে সে যেন মনযোগ দিয়ে কথা শোনে। মনের ভেতরকার দু:খ কষ্টগুলো ভাগাভাগি করে নিতে পারে।

তুলা রাশি (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)
আপনি বেশ রোমান্টিক। নাট্যকলা, কবিতা সাহিত্য কিংবা লেখালেখিতে আপনার ঝোঁক থাকতে পারে। যে কোনো সমস্যা হাসিমুখে সমাধান করতে পারেন। আর তাই আপনার শুভাকাঙ্ক্ষির সংখ্যাও বেশি। অনেকের সঙ্গে তৈরি হতে পারে সম্পর্কের গভীরতা। আপনি জানেন কীভাবে ব্যালেন্স করে চলতে হয়। সহজেই মিশতে পারেন যে কারও সঙ্গে। এটা একটা ভালো গুণ। গভীর সম্পর্কের ক্ষেত্রে অসতর্কতা পদস্থলনের কারণ হতে পারে। যেটা দাম্পত্য জীবনে প্রভাব ফেলতে পারে। জীবনের কিছু ক্ষেত্রে সীমারেখা মেনে চলা উচিত। বই, পারফিউম ও প্রসাধনী সামগ্রী উপহার হিসেবে দেওয়া যেতে পারে।

বৃশ্চিক রাশি (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)
যে কোনো ঘটনা আপনার হৃদয় জল তরঙ্গের মতো তরঙ্গায়িত করে। যেমনটি দেখা যায় শান্ত পুকুরে একটি ঢিল ছোড়ার পর। আপনি যুক্তি ও আবেগ দ্বারা প্রভাবিত হন। কলা ও বিনোদনমূলক কর্মকাণ্ডে আপনার সম্পৃক্ততা থাকতে পারে। অবসরে প্রিয় মানুষকে নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন সেসব স্থানে কিংবা পছন্দের কোনো রেস্তোরাঁয়। আপনার মধ্যে জৈবিক সম্পর্কের ঝোঁক থাকতে পারে। এ ক্ষেত্রে আপনাকে আরও সতর্ক হতে হবে। কারণ আপনি লোকের মুখ বন্ধ করতে পারবেন না। মনের দিক থেকে এ রাশির জাতক জাতিকারা যতটা কোমল ততটাই কঠোর।

ধনু রাশি (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর)
আপনি যতটা রোমান্টিক তার চেয়ে বেশি বাস্তববাদী। আপনি চান প্রিয় মানুষকে নিয়ে সুখের সংসার রচনা করতে। যে কোনো সমস্যার ক্ষেত্রে সমাধানের উপায় নিজেই বের করতে পারেন। বাস্তবতার নিরিখে বুঝতে পারেন কোন পরিস্থিতিতে কী করণীয়। এ রাশির নারীদের রান্নায় নতুনত্ব থাকে। যখন যা করেন মনোযোগ দিয়ে করেন। মা হিসেবে তারা যেমন মমতাময়ী, স্ত্র্রী হিসেবে তেমনি সচেতন। বলে রাখা ভালো এ রাশির নারী কিংবা পুরুষ অযাচিত ব্যয় পছন্দ করেন না। যে কোনো উপহার দেওয়ার আগে জেনে বুঝে ভেবে নিন। আত্মজীবনী ও ধর্মীয় বই এদের পছন্দ। এ রাশির নারীরা সাধারণত রাঁধতে এবং সাজতে পছন্দ করে।

মকর রাশি (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)
মকর রাশির জাতক জাতিকারা সাধারণত সত্যাণ্বেসী বাস্তববাদী ও হিসেবি। এমনকি প্রেমের সম্পর্কের ক্ষেত্রেও হিসেব করে চলেন। যে কোনো কাজে ধীরস্থিরভাবে এগুতে পছন্দ করেন। এরা দায়িত্ববান ও গুছিয়ে কাজ করতে পছন্দ করেন। এরা সবসময় কোনো না কোনো হিসেবে নিকেশ নিয়ে ব্যস্ত থাকেন। নিজের ভালোলাগার কথা সহজে প্রকাশ করেন না। এ কারণেই এদেরকে বুঝতে পারা সহজসাধ্য নয়। এদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারলে সম্পর্ক ভালো হয়। চিন্তা চেতনায় বিপরীতমূখী হলে সে সম্পর্ক খুব একটা ভালো যাবে না। এতে খেতে ও খাওয়াতে পছন্দ করেন। এদের সঙ্গে কোনো বিষয়ে লুকোচুরি করতে যাবেন না। একবার ধরা খেলে জীবনেও আপনাকে বিশ্বাস করবে না।

কুম্ভ রাশি (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)
কুম্ভরাশির জাতক জাতিকারা যে কোনো বিষয় গভীরভাবে চিন্তা করতে পছন্দ করেন। নীরবে নিভৃতে নিজস্ব চিন্তার জগতে বিচরণ করতে এরা ভালোবাসেন। এরা সবার সঙ্গে সহজেই মিশতে পারে না। যে কারণে এদের ঘনিষ্ঠ বন্ধুর সংখ্যাও একেবারে কম। নির্জনতা এদের প্রিয়। এরা কোলাহল পছন্দ করে না। এদের চিন্তার জগতের বিশালতা সম্পর্কে কল্পনা করাও অনেকের পক্ষে সম্ভব নয়। অযাচিত বিষয়ে এদের সঙ্গে আলাপচারিতা করা বোকামী। এতে সম্পর্কে দূরত্ব তৈরি হতে পারে। এরা বাস্তববাদী। সহজে প্রেমের সম্পর্কে জড়াতে চায় না। কোনো সম্পর্কে জড়ানোর আগে ভালোভাবে জেনে বুঝে তারপর সিদ্ধান্ত নেয়। তবে মনে রাখবেন এই রাশির জাতক জাতিকাদের চাপ প্রযোগ করে কিছু করানো সম্ভব নয়। বরং ভালোবাসা দিয়েই করা যাবে জয়।

মীন রাশি (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)
জল রাশি মীনের জাতক জাতিকারা সাধারণত হাসিখুশি ও প্রাণবন্ত থাকতে পছন্দ করেন। এদের সান্নিধ্যে গেলে যে কারও মন ভালো হয়ে যায়। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের প্রতি এদের ঝোঁক থাকে। গৃহপালিত প্রাণী, ক্যাকটাস ও অ্যাকুরিয়াম এদের পছন্দ। অনেকের বাসা কিংবা অফিসে বিভিন্ন ধরনের ক্যাকটাস থাকতে পারে। ফটোগ্রাফি ও সৃজনশীল কাজের প্রতি এদের আগ্রহ থাকে। প্রেম রোমান্সের ক্ষেত্রে এরা যথেষ্ট সচেতন। মনের মানুষকে খুশি রাখতে সাধ্যমত চেষ্টা করেন। এরা বেড়াতে ও খেতে পছন্দ করেন। যে কোনো সম্পর্ককে আনন্দময় করতে মাঝে মধ্যে পছন্দের খাবারের আয়োজন করতে পারেন। এ রাশির নারীদের রান্নার প্রশংসা করলে খুশি হয়। বাস্তবভিত্তিক চিন্তায় পুরুষরা নারীদের চেয়ে অগ্রগামী।

facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*